এই গরমে আপনার চার পেয়ে বন্ধু কুকুরটির যত্ন নিচ্ছেন তো?

কুকুর

প্রাণীকূলে মানুষের সাথে সবচেয়ে ভালো বন্ধুত্ব হয় কুকুরের। কুকুরের চেয়ে বিশ্বস্ত প্রাণী আর একটি পাবেন না। এদের প্রভু ভক্তের নানা ধরণের নজির রয়েছে।

আমাদের দেশে অনেক পরিবার আছে যারা ঘরে কুকুর পালেন। আমাদের দেশে সব জাতের কুকুর ভালো থাকতে পারে না।

প্রচণ্ড গরমে আমাদের অবস্থা যেমন  নাজেহাল হয়ে যায়  ঠিক তেমনি খারাপ  অবস্থা হয় বাড়ির পোষা কুকুরেরও। তাই শুধু কুকুর নয়, বাড়িতে পোষা অন্যান্য প্রাণীর যত্নও নেয়া উচিত।

পানি

কুকুরের পানির বাটি ভরা আছে কিনা সে দিকে সব সময় নজর রাখুন। আপনি যেমন গরমে কিছুক্ষণ পর পর পানি খোঁজেন আপনার কুকুরটিরও এমন অবস্থা হয়।

এ গরমে ওদের তৃষ্ণা পাবে এবং তাড়াতাড়ি পানি শেষ করে ফেলবে।

তাই কখনই যেন বাটির পানি শেষ হয়ে যাওয়ার কারণে ওরা যেন পানিকষ্টে না পড়ে।

ওদের পানির বাটিতে কয়েকটা আইস কিউব ফেলে রাখতে পারেন। বাইরে হাঁটাতে নিয়ে বের হলে অবশ্যই ওদের জন্য সঙ্গে পানির বোতল রাখুন।

হাঁটা

কুকুরের স্বাস্থ্য ভাল রাখার জন্য এবং ওদের মল-মূত্র ত্যাগ করার জন্য প্রতি দিন রাস্তায় হাঁটতে নিয়ে যাওয়া প্রয়োজন।

চেষ্টা করুন একদম সকালে যখন রোদের তাপ কম থাকে তখন অথবা সূর্যাস্তের পর হাঁটতে নিয়ে যেতে।

পিচের গরম রাস্তা কিন্তু সূর্যাস্তের পরও গরম থাকে। তাই ওদের মাঠে বা ছায়ায় হাঁটানোর চেষ্টা করুন।

খেয়াল রাখুন ওদের মল মূত্রের কারণে কেউ যেন বিরক্ত বোধ না করে। রাস্তার মাঝখানে করলে মল সরিয়ে রাখুন।

পেট ঠান্ডা

গরমে পেট গরম হয়ে যেমন আমাদের সমস্যা হয় তেমনই ওদেরও হয়। মেঝেতে ওরা যেখানে বসে সেখানে ভেজা তোয়ালে বিছিয়ে দিন। এতে ওরা আরাম পাবে। বার বার ঘর মুছেও দিতে পারেন ভেজা কাপড় দিয়ে।

দেখবেন ওরা ভেজা মেঝতে বসতেই বেশি পছন্দ করবে। তাছাড়া আপনার ঘরটিও ঠাণ্ডা থাকবে।

টিকা ও চিকিৎসা

কুকুরকে জলাতঙ্কের টিকা দেওয়া আবশ্যক। জলাতঙ্ক ছাড়া আরও সাতটি গুরুতর রোগবালাই কুকুরকে আক্রমণ করতে পারে। এ জন্য প্রতিবছর একটি করে টিকা দেওয়া প্রয়োজন। এ ছাড়া যেকোনো রোগবালাই দেখা দিলে নিকটস্থ পশু চিকিৎসালয়ে যোগাযোগ করতে পারেন।

পুরান ঢাকার ফুলবাড়িয়ায় আছে কেন্দ্রীয় পশু হাসপাতাল। মোহাম্মদপুরের বছিলায় আছে অভয়ারণ্য। এ ছাড়া গুলশান, ধানমন্ডি ও উত্তরায় কিছু বেসরকারি ক্লিনিক রয়েছে।

ক্লিনিকগুলোতেও টিকাদানের ব্যবস্থা আছে। আপনার প্রিয় প্রাণীটির জন্য সবসময় সচেতন থাকুন এবং ওকে ভালো রাখুন।

নিম্নের লক্ষণগুলো খেয়াল রাখুন

বার বার হাঁপিয়ে ওঠা, পিঠ গরম হয়ে যাওয়া, ঢুলুঢুলু চোখ- এগুলো ডিহাইড্রেশনের লক্ষণ।

আপনার পোষা কুকুরের মধ্যে এ রকম কোনও সমস্যা দেখা দিলেই সতর্ক হয়ে যান।

মনে রাখবেন কুকুরদের গরমে প্রতিক্রিয়া জানানো কিন্তু মানুষদের থেকে আলাদা।

অতিরিক্ত গরমে আপনার কুকুরটি হিটস্ট্রোক করে ফেলতে পারে। অনেক ক্ষেত্রে ব্রেইন স্ট্রোকও করতে পারে।

কুকুর সম্পর্কে  রয়েছে বেশ কিছু মজার মজার তথ্য যা আমরা অনেকেই জানি না।

কুকুর সম্পর্কে কিছু অজানা মজার তথ্য

-মানুষ প্রায় ৩০ হাজার বছর পূর্বে পোষা প্রাণী হিসেবে কুকুরকে নিজেদের সাথে রাখতে শুরু করে।

-বিশ্বের সবথেকে বয়স্ক কুকুরের নাম ছিল ম্যাগি, যা ৩০ বছর বয়সে মারা যায়। অস্ট্রেলিয়ায় ১৯৮৬ সালে জন্ম নেয়া ম্যাগি ১৪ এপ্রিল, ২০১৬ সালে মারা যায়।

– মানুষের রক্তের গ্রুপ চার প্রকারের হলেও কুকুরের প্রায় ১৩ প্রকারের হয়ে থাকে।

– গড়ে ২ বছর বয়সের একটি কুকুরের বাচ্চা যে পরিমাণ বুদ্ধিমান হয় তাতে তা মাত্র ১৫০ টি শব্দ বুঝতে পারে।

-কুকুরের শুধুমাত্র নাক ও থাবা দিয়ে ঘাম বের হয়।

-কুকুরের ঘ্রাণশক্তি মানুষের চেয়ে প্রায় ১০ হাজার গুণ বেশি।

-চীনে প্রতিদিন ৩০ হাজার কুকুর মাংস ও চামড়ার জন্য হত্যা করা হয়।

-যদি কুকুর ডানদিকে হেলে যেতে থাকে তবে বুঝতে হবে সে খুশি আছে। আর যদি বামদিকে হেলে যেতে থাকে তবে বুঝতে হবে সে খুশি নয়।

– কুকুর আপনার পাশে এসে লেজ নাড়ালে বুঝবেন সে কামড়াবে না। বুঝবেন খাবারের আশায় কাছে আসছে।

– কুকুরও মানুষের মত স্বপ্ন দেখতে পারে!

-কুকুর পোষায় আমেরিকার লোকেরা বেশি শখ প্রিয়। সেখানে প্রায় ৭ কোটি ঘরে পোষা কুকুর রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *