কুকুর যদি খেতে না চায় তাহলে কি করবেন?

কুকুর

আমাদের ঘরের পোষা প্রাণীটি কিন্তু আমাদের কাছে বাচ্চা বা শিশুর মত প্রিয়। বাচ্চারা যখন খেতে না চায় তখন আপনি কিছুটা হলেও আন্দাজ করতে পারেন যে কেন ওর খাবারে অরুচি। কিন্তু আমাদের পোষা প্রাণীটির ক্ষেত্রে কি আমরা বুঝতে পারি তারা কেন খাচ্ছে না? আমরা আজ আমাদের সবচেয়ে প্রিয় পোষা প্রাণী কুকুরকে নিয়ে আলোচনা করব। কুকুর স্বভাবতই খেতে ভালবাসে।

যদি খাওয়া বন্ধ করে দেয় তাহলে বুঝতে হবে কোন শারীরিক কারণে এমনটা হচ্ছে। না খাওয়ার সঠিক কারণ বের করে এর জলদি সমাধান করুন।

কুকুর যদি অসুস্থ হয়

প্রথমেই আপনি আপনার কুকুরটির শরীরের তাপমাত্রা মেপে দেখুন। যদি ১০২ ডিগ্রির এক দাগও বেশি হয় তাহলে তা জ্বর বলে গণ্য হবে। জ্বর, ডায়রিয়া, কিডনির সমস্যা হলে কুকুর খেতে চায় না।

কুকুর

সমাধান- যত দ্রুত সম্ভব ভেটের কাছে নিয়ে যান। কুকুরদের সুস্থ হতে বেশি সময় লাগে না। আর ওকে অনেক সময় দিন ও অনেক ভালবাসুন।

কুকুরের যদি ক্রিমি হয়

এটা খুব বড় একটা সমস্যা। কুকুরের যদি শরীরে ক্রিমি থাকে তাহলে বমি করবে অনেক ক্ষেত্রে পাতলা পায়খানাও করতে পারে। সুতরাং এমতাবস্থায় অরুচি হওয়াটা খুব স্বাভাবিক।

কুকুর

সমাধান- এমন হলে জলদি ডাক্তারের শরণাপন্ন হন। ডিওয়ারমিং ওষুধ অথবা ভেক্সিন করিয়ে নিন। এতে করে ও অনেক দিন ক্রিমি থেকে সুরক্ষিত থাকবে। বেশি দেরি হয়ে গেলে আপনার কুকুরটি মারাও যেতে পারে। সব সময় পরিষ্কার পরিচ্ছন থাকবেন। কারণ এই ক্রিমি আপনাকেও আক্রান্ত করতে পারে।

কুকুরকে যদি স্পে বা নিউটার করানো হয়

স্পে বা নিউটার করালে কুকুরের অরুচি দেখা যায়। অনেক সময় ভ্যাক্সিনেশন করানোর ফলেও এমনটা হতে পারে। শরীরের তাপমাত্রাও স্বাভাবিকের ছেয়ে কিছুটা বেশি থাকে।

কুকুর

সমাধান- এমন হলে চিন্তার কোন কারণ নেই। কিছু দিন সময়দিন ও নিজে নিজেই ঠিক হয়ে যাবে। ওকে একটু বেশি সময় দিন।

হিটিং টাইম হলে অরুচি হয়

যদি আপনার কুকুরের হিটিং টাইম হয়ে থাকে তাহলে ও ঠিক মত খাবে না, অযথা ডাকাডাকি করবে, যেখানে সেখানে পি(প্রস্রাব) করতে পারে।

সমাধান- এ ধরণের সমস্যা হলে জলদি ওর সঙ্গী আনার ব্যবস্থা করুন। অনেকে এমন সমস্যায় নিউটার করিয়ে দেন কিন্তু এতে করে ওর স্বাস্থ্যের ক্ষতি হতে পারে।

দীর্ঘদিন একই খাবার খেলে

অনেকের অভিযোগ থাকে আমার কুকুর ছোট বেলায় অনেক খেত এখন কিছু খেতে চায় না। একদম খাওয়া কমিয়ে দিয়েছে। সেক্ষেত্রে লক্ষ করুন আপনি ওকে দীর্ঘদিন একই খাবার দিচ্ছেন কিনা। যদি দিয়ে থাকেন তাহলে সমস্যাটা এখানেই।

কুকুর

সমাধান- আপনাকে যদি তিন বেলা ভাত আর ডাল খেতে দেয়া হয় অথবা প্রতিদিন পোলাও-মাংস দেয়া হয় আপনি কতদিন খেতে পারবেন? আপনার কুকুরের ক্ষেত্রেও ব্যাপারটা এমন। সুতরাং খাবারে বৈচিত্র্য আনুন। খাবারের তালিকায় ফল, চিজ, সবজি রাখুন। সব সময় পরিষ্কার, তাজা এবং ভাল খাবার খাওয়াতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *