দারুচিনি শুধু রান্নায় নয় ত্বকের যত্নেও ব্যবহার করুন

দারুচিনি

দারুচিনি এশিয়া মহাদেশের একটি অনন্য সুগন্ধি মশলা। যা খাবারে দেয় আলাদা এক স্বাদ। এতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, ম্যাঙ্গানিজ, ক্যালসিয়াম ও আয়রন থাকে। প্রাচীন যুগে আয়ুর্বেদিক ও চীনা ওষুধ তৈরিতে এটি ব্যবহার করা হতো।

আমরা অনেকেই হয়তো জানি দারুচিনি মশলা এবং ঔষধ হিসেবে ব্যবহৃত হয়। কিন্তু অনেকে হয়তো এটা জানেন না ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে এটি কি পরিমাণ সাহায্য করে।

আপনাদের আজ জানিয়ে দেব আপনার ত্বকের কোন সমস্যায় কিভাবে ব্যবহার করবেন।

দারুচিনি ব্রণ দূর করতে সাহায্য করে

দারুচিনি মুখ ও শরীরের বিভিন্ন অংশের ব্রণ ও মেছতা দূর করতে সাহায্য করে। মেছতা আর ব্রণ নিয়ে অনেকেই বিব্রত বোধ করেন। অনেক কিছু চেষ্টা করেও এর থেকে পরিত্রাণ পাচ্ছেন না।

এর জন্য যা যা করতে হবে তা হলো, তিন টেবিল চামচ মধুর সঙ্গে এক টেবিল চামচ দারুচিনি গুঁড়া ভালো করে মেশান।

মিশ্রণটি আপনার ব্রণ আক্রান্ত অংশে লাগিয়ে সারা রাত রেখে দিন। আবার ২০ মিনিটের জন্য রেখে পানি দিয়ে ধুয়েও নিতে পারেন।

নিয়মিত ব্যবহার করুন অবশ্যই ফল পাবেন। প্রাকৃতিক উপাদান তাই কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

দারুচিনি মৃত কোষ দূর করতে পারে

মৃত কোষ দূর করতে সাহায্য করে এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা ও মসৃণতা ফিরিয়ে আনে। ত্বক খুব মসৃণ রাখে।

এই স্ক্রাব তৈরি করতে যা যা লাগবে:

লবণ, বাদামের তেল, অলিভ অয়েল, মধু ও দারুচিনি একসঙ্গে মিশিয়ে ঘন মিশ্রণ তৈরি করে নিন।

মুখে লাগিয়ে পাঁচ মিনিট হালকাভাবে ম্যাসাজ করুন।

এখন পাঁচ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ত্বক উজ্জ্বল করতে

দারুচিনিতে আছে অ্যান্টিফাঙ্গাল ও অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল নামক দুটি উপাদান, যা ত্বককে উজ্জ্বল ও ফর্সা করতে সাহায্য করে।

এই প্যাক তৈরি করতে যা যা লাগবে: একটি পাত্রে ছোট একটি কলা থেঁতলে নিন। সঙ্গে মেশান টক দই, দারুচিনি গুঁড়া ও লেবুর রস।

এবার মিশ্রণটি পরিষ্কার মুখে লাগিয়ে ১৫ মিনিট রেখে দিন। তারপর হালকা কুসুম গরম পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

বলিরেখা দূর করতে

ত্বকের স্বাভাবিক রক্ত এবং অক্সিজেনের প্রবাহ বজায় রাখে।

কয়েক ফোঁটা দারুচিনির তেলের সঙ্গে পেট্রোলিয়াম জেলি মিশিয়ে মুখে লাগান।

মুখে যা-ই লাগান না কেন, অবশ্যই চোখে যেন প্রবেশ না করে খেয়াল রাখবেন। এখন হালকা ম্যাসাজ করুন। এবার ধুয়ে ফেলুন।

রুক্ষ পায়ের যত্নে

পায়ের রুক্ষ ও শুষ্ক ত্বককে মসৃণ করতে সাহায্য করে। পায়ের মৃত চামড়া গুলো খুব সহজে উঠে যায়।

পায়ের যত্নে যা যা লাগবে:

পাঁচটি লেবুর রস, এক টেবিল চামচ অলিভ অয়েল, এক কাপ দুধ, আধা কাপ পানি ও দুই টেবিল চামচ দারুচিনি গুঁড়া মিশিয়ে সেই মিশ্রণে পা দুটি ১৫ মিনিটের জন্য ডুবিয়ে রাখুন।

এটি আপনার পা নরম ও মসৃণ করতে বেশ সাহায্য করবে।

দারুচিনির আরও কিছু উপকারিতা

নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ দূর করতে

এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে ১ চা চামচ দারুচিনি গুঁড়া মিশিয়ে গার্গল করুন। দিনভর থাকবে সজীব নিঃশ্বাস।

পায়ের যত্নে

১ কাপ কুসুম গরম পানিতে ৫ ফোঁটা লেবুর রস ও ৫ ফোঁটা ল্যাভেন্ডার অয়েল মেশান। ১ চা চামচ মধু ও ১ টেবিল চামচ দারুচিনি গুঁড়া দিয়ে পা ভিজিয়ে রাখুন ১৫ মিনিট।

পা ধুয়ে ফেলার আগে স্ক্রাব করে নিন শক্ত ব্রাশ দিয়ে। অবশ্যই পা ধোয়ার পর মশ্চারাইজার ব্যবহার করবেন।

চুলের যত্নে

২ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল গরম করে নিন। কিছুটা ঠাণ্ডা হওয়ার পর ১ চা চামচ দারুচিনি গুঁড়া এবং ১০ ফোঁটা আমন্ড তেল মেশান।

কুসুম গরম থাকা অবস্থায় তেল ম্যাসাজ করুন মাথার ত্বকে। ১৫ মিনিট পর মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। চুল হবে ঝলমলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *