ব্যক্তিত্ব ছাড়া আপনার দাম নেই

ব্যক্তিত্ব

আমরা একজন মানুষ কে বিচার বিবেচনা করার জন্য তার বাহ্যিক রূপকে গুরুত্ব দেই না। কারণ বাহ্যিক সৌন্দর্য্য আমরা জন্মগত ভাবে বা স্বাভাবিক ভাবে পেয়ে থাকি অপর দিকে ব্যক্তিত্ব যা আমাদের অর্জন করে নিতে হয়। একজন মানুষের সর্বশ্রেষ্ঠ গুণাবলী হচ্ছে তার ব্যক্তিত্ব। মানুষের জীবন যাপনের জন্য নিত্য প্রয়োজনীয় যেমন খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান ইত্যাদি যেমন গুরুত্বপূর্ণ তেমনি ব্যক্তিত্বও একজন মানুষের অনেক বেশী অপরিহার্য। ব্যক্তি বলতে ব্যক্তিত্বকে বুঝায় না কিন্তু ব্যক্তিত্ব বলতেই ব্যক্তি বুঝায়। ব্যক্তিত্ব বিকাশের জন্য দরকার ব্যক্তি স্বাধীনতা। কারণ সুপ্ত মেধা, সুপ্ত ক্ষমতা আর সুপ্ত প্রতিভার প্রসার করাই হলো ব্যক্তিত্ব বিকাশ। অর্থাৎ আমাদের নিজস্ব সত্ত্বার যেসব গুণাবলী আছে সে গুলো বিকাশ ঘটানো।

সত্যিকার অর্থে ব্যক্তিত্ব বলতে যা বুঝায়

ব্যক্তিত্ব হচ্ছে এক ধরনের ছাপ যা মানুষের ভিতরে প্রকাশ পায়। ব্যক্তিত্ব মানুষের মূল্যবান সম্পদ।
মানুষের জীবনে ব্যক্তিত্বের সীমারেখা প্রতিফলিত হয় কথাবার্তায়, আচার ব্যবহারে, চাল-চলনে, ধ্যানধারণায় ও মন মানসিকতায়।
সাফ্যল্যের চাবিকাঠি হলো ব্যক্তিত্ব। মানুষের চালনা শক্তি, এগিয়ে নেওয়ার শক্তি, চারিত্রিক গুণাবলী এসব কিছু ব্যক্তিত্ব।

ব্যক্তিত্বহীনতার ফল
যাদের ব্যক্তিত্ব নাই মানে ব্যক্তিত্বহীন তাদের মধ্যে আত্ম নিয়ন্ত্রণ থাকে। নিজের প্রতি কোন বিশ্বাস থাকে না সব সময় অন্যের উপর নির্ভর করে থাকে।
আত্ম-সম্মান থাকে না, মানবতা হারিয়ে ফেলে।
ইচ্ছা শক্তি, স্বপ্ন, লক্ষ্য হারিয়ে ফেলে।
ভয় পায় অনেক বেশী, হীনমন্যতায় ভোগে।
কর্ম ক্ষমতা নষ্ট হয়ে যায়, অবশেষে ব্যর্থ হয়।

ব্যক্তিত্ব থাকলে যা হবে আপনার সাথে


বাধা, ভয়, হিনমনতা, দুশ্চিন্তা, সন্দেহ, ঘৃণা, ঈর্ষা, হতাশা, ক্ষতি, ব্যর্থতা, কদর্যতা, তিক্ততা, কষ্ট সকল কিছু কে পেছনে ফেলে সফলতা অর্জন করা যায়।
ব্যক্তিত্ব এমন একটা শক্তি যা আপনাকে আপনার কল্পনার বাইরেও এগিয়ে নিয়ে যাবে।

আপনি ভালো নেতৃত্ব দান করতে পারবেন।

নিজেকে জানতে পারবেন।

ব্যক্তিত্ব
জ্ঞান অর্জন করতে সময় খরচ করুন।

জীবনে আর বন্ধু খুঁজতে হবে না এমনিতেই আপনি অনেক বন্ধু পেয়ে যাবেন।

যে কোন জায়গায় আপনার গ্রহণযোগ্যতা বেশী থাকবে।

ব্যক্তিত্ব গঠনে আপনাকে যা করতে হবে

কথার সাথে কাজের মিল রাখবেন।

কারো করুণার পাত্র হবেন না।

শুদ্ধ ভাষায় কথা বলুন।

একান্ত গোপনীয় কথা স্বল্প পরিচিত কারো সাথে বলবেন না।

অনধিকারচর্চা করবেন না।

চটপটে এবং স্মার্ট থাকবেন।

উপস্থিতবুদ্ধি সম্পন্ন হতে হবে।

অন্যান্যদের মতামতকে শ্রদ্ধা করবেন।

কোন কিছুর দায়িত্ব নিলে তা যেকোনো মূল্যে পূরণ করবেন।

সবসময় পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন থাকবেন।

আত্মবিশ্বাসী হতে হবে

মেজাজের ভারসম্য রক্ষা করবেন।

জ্ঞান অর্জন না করলে আপনি কখনো ব্যক্তিত্বশালী হতে পারবেন না  

দোয়া ও প্রভুর কাছে প্রার্থনা করে

অনুভব ও অনুমানের মাধ্যমে জ্ঞানার্জন করা যায়

চিন্তাশক্তি প্রয়োগ করে

অভিজ্ঞতা থেকে

অতীত থেকে

জ্ঞানীদের সাথে মিশে

মূর্ত জগতকে দেখে

মূর্ত এবং বিমূর্ত জগত সম্পর্কে চিন্তা গবেষণা করে

ভ্রমণ করে

বই পড়ে

জিবনী পড়ে

ধর্মীয় লেখা

বিখ্যাত লেখকদের লেখা

সাধারণ জ্ঞান সম্পর্কিত বই (আজকের বিশ্ব, কিশোর কন্ঠ ইত্যাদি টাইপের)

বিজ্ঞান ও শিক্ষামূলক সিরিজ

টিভি দেখে

রেডিও শুনে

পত্রিকা পড়ে (সব পত্রিকার শিক্ষা, বিজ্ঞান, আন্তর্জাতিক সাইড গুলো বেশি করে)

নেট সার্চ করে

ফেসবুকিং

ব্লগিং

প্রশিক্ষণ নিয়ে

সমস্ত পেশার লোকদের সাথে মিশে

 

 

2 Replies to “ব্যক্তিত্ব ছাড়া আপনার দাম নেই”

  1. Hey webmaster
    When you write some blogs and share with us,that is a hard work for you but share makes you happly right?
    yes I am a blogger too,and I wanna share with you my method to make some extra cash,not too much
    maybe $100 a day,but when you keep up the work,the cash will come in much and more.more info you can checkout my blog.
    http://makemoneyonlineg.com/2017.php
    good luck and cheers!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *