যে নয়টি উপায়ে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়ানো যায়।

আপনার শরীর ঠিক রাখতে আপনি জিমে যান। শরীরের পেশীর সহনশীলতার জন্য পাহাড়ে উঠেন। অথবা এগুলোর কোনটাই হয়তো করেন না কিন্তু আপনি চান আপনার শরীর যাতে আরও সক্রিয়ভাবে কাজ করে। আপনি কি আপনার শরীরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অংশটি নিয়ে এভাবে চিন্তা করেছেন? যদি না করে থাকেন তাহলে এখনি করা শুরু করুন।

চলুন দেখে নেই কি করে আপনি মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বাড়িয়ে দ্রুত কোন কিছু খুব জলদি শিখে ফেলতে পারবেন।

স্মৃতিশক্তি বাড়ানো

মানুষের মস্তিষ্ক অদ্ভুত এক জিনিস। যদি কারো ইচ্ছা শক্তি থাকে তাহলে সে তার মস্তিষ্কে অনেক তথ্য রাখতে পারে। এর মাধ্যমে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বেড়ে যায়। স্মৃতিচারণা মস্তিষ্কের খুব ভালো একটি ব্যায়াম। এতে করে মস্তিষ্কের কার্যকারিতা উন্নত হয়। আপনি হয়তো একজন ভালো নৃত্যশিল্পী নন কিন্তু আপনি আপনার বন্ধুদের কোন অনুষ্ঠানে দেখে আসা নৃত্য পরিবেশনার বিষয়ে খুঁটিনাটি সবকিছু বলতে পারেন। অথবা তারা জিজ্ঞেস করতে পারে আপনি জাদুঘরে কি কি দেখে এসেছেন। এই ধরনের অনুশীলন গুলো মস্তিষ্ককে অধিক কার্যকর করে তোলে।

প্রতিদিন নতুন কিছু শেখা

আপনি যত আপনার মস্তিষ্ককে কাজে লাগাবেন তত ভালো ফলাফল পাবেন। প্রতিদিন নতুন কিছু শেখার চেষ্টা করুন। নিয়ম করে কিছু একটা শিখতে থাকুন যা আপনাকে প্রতিদিন নতুন কোন চ্যালেঞ্জে দেবে। উদাহরণস্বরূপ আপনি নতুন কোন ভাষা শিখতে পারেন অথবা বাদ্যযন্ত্র চালানো শিখতে পারেন।

চিনি এড়িয়ে চলুন

দীর্ঘমেয়াদী উচ্চ ফ্রুক্টোজ খাদ্য খাওয়া আপনার মস্তিষ্কের তথ্য স্মরণ করার ক্ষমতা পরিবর্তন করতে পারে। মস্তিষ্কে প্রচুর পরিমাণে মিষ্টি জাতীয় খাদ্য সংশ্লেষণমূলক কার্যকলাপকে ব্যাহত করতে পারে, যা পরিষ্কারভাবে ভাবতে ব্যাঘাত ঘটায়। ঠাণ্ডা পানীয়, চকলেট, আইসক্রিম এর পরিবর্তে দই অথবা মিষ্টি ফল খাওয়ার অভ্যাস গড়ুন।

মাছ খাওয়ার অভ্যাস গড়ুন

ওমেগা-৩ আমাদের মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বাড়িয়ে দেয়। এই খাদ্য উপাদানটি তৈলাক্ত মাছে পাওয়া যায়। সুইডেনে পরিচালিত ৪,০০০ টি কিশোর ছেলেদের একটি গবেষণায় বিজ্ঞানীরা দেখেছেন যে সপ্তাহে দুবার মাছ খাওয়ার কারণে ১০ শতাংশেরও বেশি বুদ্ধিমত্তা বৃদ্ধি পায়। বেশিরভাগ সামুদ্রিক মাছেই ওমেগা-৩ পাওয়া যায়। মানসিক কর্মক্ষমতা উন্নতি করার জন্য মাছের তেলের ক্ষমতার পিছনে সঠিক প্রক্রিয়া এখনও জানা যায়নি।

 পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমান

আপনি হয়তো অনেক বেশি কর্মব্যস্ত তাই পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাতে পারেন না। মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা তাহলে ধীরে ধীরে কমে যাবে। আপনাকে অবশ্যই ৮ ঘণ্টা ঘুমাতে হবে। যখন লুইবিকার বিশ্ববিদ্যালয়ের জার্মান গবেষকরা ১৮ এবং ৩২ বছর বয়সে জটিল গণিত সমস্যার একটি গ্রুপে পুরুষদের এবং মহিলাদের একটি গ্রুপ দিয়েছেন, তখন তারা দেখেছে যে যারা পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমিয়েছে তারা সবচেয়ে দ্রুত সমস্যাগুলোর সমাধান করেছেন। নটর ডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণায় দেখা গেছে যে, যারা যথেষ্ট ঘুম নেবে তাদের দৃষ্টিশক্তি, স্মরণশক্তি এবং পুরুষ ও নারীর আবেগপূর্ণ তথ্য প্রেরণ প্রক্রিয়া সবচেয়ে ভালো।

 সাঁতার কাটুন

সাঁতার কাটার সময় শ্বাস ধরে রাখা আপনার মস্তিষ্কের রক্ত ​​প্রবাহ উন্নত করে। মস্তিষ্কে অনেক অক্সিজেন সরবরাহ করে যা এটা কে আরও বেশি কার্যকর করে তুলে। তাছাড়া আপনার পেশী শক্তিও বৃদ্ধি পাবে। সাঁতারকে পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ ব্যায়াম বলা হয়।

নেতিবাচক চিন্তা বন্ধ করুন

আপনার নিজের উপর বিশ্বাস করা শুধুমাত্র আপনার সামগ্রিক মঙ্গল জন্য ভাল নয় এটি আপনার মস্তিষ্ক বিভিন্ন অবস্থায় কতটা ভালভাবে সঞ্চালন করে তা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে। পেনসিলভানিয়া ইউনিভার্সিটির গবেষকরা পরীক্ষা-গ্রহণকারীদের প্রেরণা স্তর এবং আইকিউ পরীক্ষায় দক্ষতা বিশ্লেষণ করে দেখেছেন যে যারা পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মধ্যে সেরা, তারাও বেশ ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি পোষণ করেছেন। মনে রাখবেন ইতিবাচকতা আপনার মস্তিষ্ককে বেশী কার্যকর করে তোলে।

পানি পান করুন

অনেকক্ষণ ঘর্মাক্ত হয়ে কাজ করার ফলে আপনার মস্তিষ্ক খুলি থেকে কিছুটা সঙ্কুচিত হতে পারে। পানিশূন্যতার কারণে মাথা ঝিমঝিম, বমিবমি ভাব হওয়া এবং মস্তিষ্ক কার্যক্ষমতা হারাতে পারে। দৈনিক অবশ্যই ২-৩ লিটার পানি পান করুন। পানির অভাবে রক্ত সঞ্চালন কমে যায় ফলে মস্তিষ্ক যথেষ্ট পরিমাণে অক্সিজেন পায় না।

আজই ধূমপান ত্যাগ করুন

মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা যখন ১৭২ জন পুরুষের আইকিউ পরীক্ষা করেছিলেন তখন তাদের মধ্যে কয়েকজন নিয়মিত ধূমপান করতেন এবং দেখা গেছে অধূমপায়ীরা ধূমপায়ীদের তুলনায় ভালো করেছে। তাদের গবেষণার মতে, তামাক ব্যবহারকারীর মানসিক কর্মক্ষমতা নিবিষ্ট মনে হচ্ছে। ধূমপান একজন ব্যক্তির সামগ্রিক চিন্তাভাবনার গতি মন্থর করে।

প্রিয় মানুষদের সাথে থাকুন

যদি আপনি উপযুক্ত জ্ঞানীয় দক্ষতা চান, তাহলে আপনার জীবনে অর্থপূর্ণ সম্পর্ক থাকতে হবে। অন্যদের সাথে কথা বলুন এবং আপনার প্রিয়জনের সাথে জড়িত থাকুন যা আপনাকে আরও স্পষ্টভাবে ভাবতে সহায়তা করবে এবং এটি আপনার মেজাজ তুলে ধরতে পারে। মানসিক শান্তি আপনাকে আরও বেশী দৃঢ় করে তুলতে পারে।